Wednesday, June 16, 2021
Home বাংলাদশে সংবাদ নারীকে আমরা সম্মান করতে জানি না, নারীর উপর সহমর্মী হতে হবে: আল্লামা...

নারীকে আমরা সম্মান করতে জানি না, নারীর উপর সহমর্মী হতে হবে: আল্লামা মাসউদ

শিখো বাংলায়.কম: ময়মনসিংহের তাড়াইল উপজেলায় জামিয়াতুল ইসলাহ আল মাদানিয়া ময়দানে ১৯, ২০ ও ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১-এই তিনব্যপী ইসলাহী ইজতেমা আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্ত হয়েছে।

এতে ইসলাহী বয়ান আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেছেন শোলাকিয়া ঈদগাহের ইমাম আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ। আখেরী মোনাজাতপূর্ব হেদায়াতি বয়ানে আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, নারীকে আমরা সম্মান করতে জানি না। নারীর উপর আমাদের সহমর্মী হতে হবে। তাদের ঘরের কাজও করে দিতেন প্রিয় নবিজী। আর জিকিরের শব্দ তাদের ঘরেও পৌঁছে দিতে হবে।

পৃথিবীর সবচেয়ে মধুর শব্দ ‘আল্লাহ ও আল্লাহর নামের জিকির’ উল্লেখ করে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেছেন, আল্লাহ নামের জিকিরের স্বাদ, আল্লাহ নামের স্বাদ কখনো কমে না, বরং যত বেশি বেশি করবে ততো স্বাদ বৃদ্ধি পাবে। আল্লার নামের জিকিরে কখনো বিরক্তিও আসে না। যে ব্যক্তি যত বেশি জিকির করবে সে আল্লাহর কাছে ততো প্রিয় হতে থাকবে। দুনিয়া ও আখেরাতে আল্লাহ ও আল্লাহর নামের জিকিরের চাইতে মধুর কোন শব্দ নেই।

ইজতেমা শেষে বাড়িতে গিয়ে ইসলাহী ইজতেমার আমলগুলোর প্রতি সযত্নে থাকার কথা বলে আল্লামা মাসঊদ আগত মুসল্লীদের উদ্দেশে বলেন, ভাই! আমরা এখানে যেসব আমল করেছি, সেসব আমল যেন বাড়িতে গিয়ে ভুলে না যাই। আমাদের এই আমলগুলো যেন অভ্যাহত থাকে। আমরা এই আমলগুলো পরিবারের সবাইকে নিয়ে সবসময় করার চেষ্টা করবো, এই প্রতিজ্ঞা করি ইজতেমার ময়দানে বসেই।

স্ত্রীর কাজে, ঘরের কাজে সহযোগিতা করা আহ্বান জানিয়ে আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, স্ত্রীর কাজে, ঘরের কাজে সহযোগিতা করা ইবাদত। ঘরের কাজে সহযোগিতা করে স্ত্রীকে ইবাদতের সুযোগ করে দেয়া পুরুষের দায়িত্ব। যে পুরুষ তার স্ত্রী কাছে প্রিয়, সে আল্লাহর কাছেও প্রিয়।

বিজ্ঞাপনImage is not loaded

প্রসঙ্গত, আগামি বছর (২০২২) ১৮, ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি এই ইসলাহী ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন ইসলাহী ইজতেমা আয়োজক কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা ঢাকা মহানগরীর কার্যকারী সভাপতি মাওলানা সদরুদ্দীন মাকনুন।

এর আগে গত ফেব্রুয়ারি শুরু হয় এ ইসলাহী ইজতেমা। তিনব্যাপী ইসলাহী ইজতেমার তৃতীয় দিনে অনেক মানুষের সম্মিলন ঘটেছে। বিশাল মাঠজুড়ে তৈরি শামিয়ানার ভেতরে-বাইরে মুসল্লিদের চলাফেরা ছিলো। এর মাঝেই চলছে বয়ান, জিকির-আজকার, ইবাদত, খাওয়া-দাওয়া ও আনুষঙ্গিক কাজ।

জনপ্রিয় খবর