Wednesday, June 16, 2021
Home মুসলিম বিশ্ব আমরা কি ‘দস্তরখান’ এর সুন্নাত আদায় করতে পারতেছি?

আমরা কি ‘দস্তরখান’ এর সুন্নাত আদায় করতে পারতেছি?

শিখো বাংলায়.কম: প্রচলিত দস্তরখান আদতে সুন্নাত নয়। আমাদের দেশে পাত্রের নিচে যে কাপড়, প্লাসটিক বা রেকসিন বিছানো হয়, তা বাস্তবে দস্তরখান নয়। কারণ এগুলোর উপর তো খানা রাখা হয় না। বরং খাবারের পাত্র রাখা হয়। দস্তরখানের সবচেয়ে বড় ফায়দা হল, তাতে খাবার পড়লে তা থেকে তুলে খাওয়া যায়।

কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় আমরা দস্তরখান বিছিয়ে খাবার খাই ঠিকই; কিন্তু দস্তরখানটি পরিষ্কার রাখি না। ফলে তাতে খাবার পড়লে তুলে খেতে রুচি হয় না। মূলতঃ খানা যে বস্তর উপর রেখে খাওয়া হয় তাকেই দস্তরখান বলে। সুতরাং আমরা যে পাত্রে বা প্লেটে খানা খাই, সেটাই মূল দস্তরখান।

নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দস্তরখান ব্যবহার করতেন। তবে তা’ ব্যবহার করার নির্দেশ বা উৎসাহ তাঁর কাছ থেকে ছহীহ সনদে বর্ণিত হয়নি। দস্তরখান ছাড়া খাদ্য গ্রহণের বিষয়ে তাঁর তরফ থেকে কোন আপত্তি সাব্যস্ত হয়নি। অনেক সময় আমরা দস্তরখান ছাড়াও খেতে বাধ্য হই। খাবার হোটেল গুলোতে আবর্জনা ফেলানোর জন্য ছোট্ট একটি বোন প্লেট রাখা হয় মাত্র। অনেক সময় এনিয়ে অযথা তিরাস্কার করা হয়, যা অনুচিত।

মহানবী সা. চামড়ার তৈরী দস্তরখান বা সুফরা ব্যবহার করতেন। এটার উপরেই থালা, বাটি, গামলা ইত্যাদি ছাড়াই সরাসরি খেজুর, পনির, ঘি-এর মতো লিকুইড খাদ্য ইত্যাদি রাখা হতো॥ দস্তরখানের উপরেই প্রয়োজনে এ সবকিছুই মিশ্রণ করা হতো এবং সেখান থেকেই খাদ্য গ্রহণ করতেন। বুখারী॥

দস্তরখান সবসময় এমন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা চাই যে, তাতে খাবার পড়লে তুলে খেতে বা তা বিছিয়ে খাবার খেতে রুচিতে না বাধে। দস্তরখানকে কাটা, হাড্ডি ইত্যাদি রাখার পাত্র বানালে একসময় তা এমন অপরিষ্কার হয়ে যায় যে, তাতে খাবার পড়ে গেলে তুলে খেতে আর রুচি হয় না। কাটা, হাড্ডি ইত্যাদি রাখার জন্য ভিন্ন পাত্র ব্যবহার করা চাই।

বিজ্ঞাপনImage is not loaded

প্রমান:১।
ابْنُ أَبِي مَرْيَمَ أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ أَخْبَرَنِي حُمَيْدٌ أَنَّه“ سَمِعَ أَنَسًا يَقُوْلُ قَامَ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم يَبْنِي بِصَفِيَّةَ فَدَعَوْتُ الْمُسْلِمِينَ إِلٰى وَلِيمَتِه„ أَمَرَ بِالأَنْطَاعِ فَبُسِطَتْ فَأُلْقِيَ عَلَيْهَا التَّمْرُ وَالأَقِطُ وَالسَّمْنُ وَقَالَ عَمْرٌو عَنْ أَنَسٍ بَنٰى بِهَا النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم ثُمَّ صَنَعَ حَيْسًا فِي نِطَعٍ.
সহিহ বুখারী, হাদিস নং ৫৩৮৭

২।
ﻭاﻟﻤﺎﺋﺪﺓ ﺗﻄﻠﻖ ﻋﻠﻰ ﻛﻞ ﻣﺎ ﻳﻮﺿﻊ ﻋﻠﻴﻪ اﻟﻄﻌﺎﻡ ﻷﻧﻬﺎ ﺇﻣﺎ ﻣﻦ ﻣﺎﺩ ﻳﻤﻴﺪ ﺇﺫا ﺗﺤﺮﻙ ﺃﻭ ﺃﻃﻌﻢ ﻭﻻ ﻳﺨﺘﺺ ﺫﻟﻚ ﺑﺼﻔﺔ ﻣﺨﺼﻮﺻﺔ ﻭﻗﺪ ﺗﻄﻠﻖ اﻟﻤﺎﺋﺪﺓ ﻭﻳﺮاﺩ ﺑﻬﺎ ﻧﻔﺲ اﻟﻄﻌﺎﻡ ﺃﻭ ﺑﻘﻴﺘﻪ ﺃﻭ ﺇﻧﺎﺅﻩ ﻭﻗﺪ ﻧﻘﻞ ﻋﻦ اﻟﺒﺨﺎﺭﻱ ﺃﻧﻪ ﻗﺎﻝ ﺇﺫا ﺃﻛﻞ اﻟﻄﻌﺎﻡ ﻋﻠﻰ ﺷﻲء ﺛﻢ ﺭﻓﻊ ﻗﻴﻞ ﺭﻓﻌﺖ اﻟﻤﺎﺋﺪﺓ
(ফাতহুল বারী শরহুল বুখারী খ:৯,পৃ:৫৮০,মিরকাত)

৩।
ﻗﻠﺖ ﻭاﻟﺘﺤﻘﻴﻖ ﻓﻲ ﺫﻟﻚ ﺃﻥ اﻟﻤﺎﺋﺪﺓ ﻫﻲ ﻣﺎ ﻳﺒﺴﻂ ﻟﻠﻄﻌﺎﻡ ﺳﻮاء ﻛﺎﻥ ﻣﻦ ﺛﻮﺏ ﺃﻭ ﺟﻠﺪ ﺃﻭ ﺣﺼﻴﺮ ﺃﻭ ﺧﺸﺐ ﺃﻭ ﻏﻴﺮ ﺫﻟﻚ ﻓﺎﻟﻤﺎﺋﺪﺓ ﻋﺎﻡ ﻟﻬﺎ ﺃﻧﻮاﻉ ﻣﻨﻬﺎ اﻟﺴﻔﺮﺓ ﻭﻣﻨﻬﺎ اﻟﺨﻮاﻥ ﻭﻏﻴﺮﻩ ﻓﺎﻟﺨﻮاﻥ ﺑﻀﻢ اﻟﺨﺎء ﻳﻜﻮﻥ ﻣﻦ ﺧﺸﺐ ﻭﺗﻜﻮﻥ ﺗﺤﺘﻪ ﻗﻮاﺋﻢ ﻣﻦ ﻛﻞ ﺟﺎﻧﺐ
(‘আওনুল মা’বূদ শরহে আবু দাউদ’ ইমাম ইবনুল কাইয়্যিম রহ. এর কিতাব)

জনপ্রিয় খবর