Wednesday, January 27, 2021
Home আজকের ফতোয়া ফজরের সুন্নত পড়তে না পারলে কি করতে হবে?

ফজরের সুন্নত পড়তে না পারলে কি করতে হবে?

মুফতি মাসউদ দিনাজপুর

 

ফজরের সুন্নত পড়তে না পারলে কি করতে হবে?

অনেক সময় ফজরের নামাজ আদায় করতে মসজিদে গিয়ে দেখা যায়, জামাত শুরু হয়ে গেছে কিংবা নামাজের ইকামত চলছে। এমন অবস্থায় মুসল্লিরা দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়ে যান। সুন্নত পড়বেন নাকি ফরজে অংশ নেবেন।

এ ধরনের দুই রকম অবস্থা হতে পারে। এক. সুন্নত পড়ে ইমাম সাহেবকে কমপক্ষে দ্বিতীয় রাকাতে পাওয়ার সম্ভাবনা থাকলে তখন মুসল্লি সুন্নত পড়ে জামাতে শরিক হবেন।

বিজ্ঞাপনImage is not loaded

এ প্রসঙ্গে আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.), আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) ও আবু দারদা (রা.)-এর মতো বিশিষ্ট সাহাবিদের থেকে বর্ণিত আছে যে, তারা ফজরের জামাত শুরু হয়ে গেলেও সুন্নত পড়ে নিতেন।

আবু দারদা (রা.) ফজরের সময় মসজিদে প্রবেশ করে লোকজনকে ফজরের জামাতে কাতারবদ্ধ পেলে মসজিদের এক কোণে (ফজরের) সুন্নত পড়তেন। অতঃপর জামাতে শরিক হতেন। (শরহু মায়ানিল আসার)

দুই. যদি সুন্নত পড়ে ইমাম সাহেবকে দ্বিতীয় রাকাতে পাওয়ার সম্ভাবনা না থাকে, তাহলে সুন্নত পড়া ছাড়াই জামাতে অংশ গ্রহণ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে তা পরে পড়ে নিতে হবে। কারণ, সুন্নত নামাজের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ফজরের দুই রাকাত সুন্নত। হাদিস শরিফে এর ফজিলত সম্পর্কে বিভিন্ন বর্ণনা এসেছে। এ ছাড়া এর প্রতি যে ধরনের তাগিদ দেওয়া হয়েছে, অন্য সুন্নতের ক্ষেত্রে ততটুকু দেওয়া হয়নি। এ প্রসঙ্গে আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেন, ‘তোমরা ফজরের সুন্নত ছেড়ে দিও না। যদিও শত্রুবাহিনী তোমাদের তাড়া দেয়।’ (আবু দাউদ, হাদিস : ১২৫৮)

আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেন, ‘ফজরের দুই রাকাত (সুন্নত) দুনিয়া ও দুনিয়ার মধ্যে যা কিছু আছে তার চেয়ে উত্তম।’ (মুসলিম, হাদিস : ৭২৫)

অন্য হাদিসে আছে, মহানবী (সা.) ফজরের দুই রাকাত (সুন্নত) নামাজে এত গুরুত্ব দিতেন যে, অন্য কোনো নফল (বা সুন্নত) নামাজে ততটুকু দিতেন না। (বুখারি, হাদিস : ১১৬৩; মুসলিম, হাদিস : ৭২৪)

সুতরাং ফজরের জামাত শুরু হয়ে গেলেও সুন্নত পড়ে যদি জামাতের সঙ্গে অন্তত দ্বিতীয় রাকাতও পাওয়া যায়, তাহলে সুন্নত নামাজ পড়ে নিতে হবে। আর দ্বিতীয় রাকাত পাওয়ার সম্ভাবনা না থাকলে সুন্নত পড়বে না; বরং জামাতে শরিক হয়ে যাবে এবং সূর্যোদয়ের পর সুন্নত পড়ে নেবে। কেননা, আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ফজরের দুই রাকাত (সুন্নত) পড়তে পারে না, সে যেন তা সূর্যোদয়ের পর পড়ে নেয়।’ (তিরমিজি, হাদিস : ৪২৩)

উল্লেখ্য, কোনো কোনো ফকিহ অবশ্য সুন্নত পড়ার পর ইমামকে তাশাহহুদে পাওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও সুন্নত পড়ে নেওয়ার কথা বলেছেন। তবে ওপরে উল্লেখিত কথাটিই অধিকাংশ ফকিহর অভিমত।

জনপ্রিয় খবর