হাঙরের প্রাণের বিনিময়ে করোনার হাত থেকে বাঁচবে মানুষ!

18

শিখো বাংলায়ঃ করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। অন্যদিকে করোনা বধে টিকা তৈরিতে উঠে পড়ে লেগেছে প্রত্যেকটা দেশ। সম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।  যার পরিণামে হয়ত মরতে হবে অন্তত ৫ লক্ষ হাঙরকে! তবে বিষয়টি নিয়ে এখনই কতটা এগোনো হবে তা নিয়ে অনিশ্চিয়তা রয়েছে। কারণ আশঙ্কা প্রকাশ করেছে একাধিক সামুদ্রিক প্রাণী রক্ষাকারী সংগঠন। তাদের স্পষ্ট বক্তব্য, ‘মানুষের প্রাণ বাঁচাতে অন্য প্রাণী হত্যা! এ কেমন বৈজ্ঞানিক সিদ্ধান্ত। করোনার হাত থেকে বাঁচতে মৃত্যু দন্ড দিতে হবে লক্ষ লক্ষ হাঙরকে?’

কেন গবেষণায় উঠে এল হাঙরের কথা? কারণ, বেশির ভাগ  টিকাতে প্রয়োজন ‘অ্যাজুভ্যান্ট’। এটি একটি ফার্মাকোলজিক্যাল এজেন্ট, যা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে সক্ষম। আর এই উপাদানটি পাওয়া যায় হাঙর মাছের লিভারে। একদিকে গোটা বিশ্বে ভ্যাকসিনের প্রয়োজনীয়তা দ্রুতহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। অন্যদিকে বিজ্ঞানীদের হাঙর নিধনের তথ্য নিয়ে টিকা তৈরির কাজে সবুজ সংকেত দিতে রাজি নয় বহু সংগঠন।

হাঙর ছাড়াও আরও বেশ কিছু প্রাণীর লিভারে পাওয়া যায় এই তেলটি। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে হাঙরের লিভার তেকে তেল নেওয়া হয়ে থাকে। জানা যাচ্ছে, শুধু আমেরিকার বাসিন্দাদের মারতে প্রয়োজন ২১ হাজার হাঙর। সেখানে গোটা বিশ্বের মানুষকে বাঁচাতে কত হাঙের প্রাণ নিয়ে নিতে হবে তার অঙ্ক কষা যাচ্ছে না। তার চেয়ে গাছ থেকেও পাওয়া যায় ‘স্কুইলিন অয়েল’। গাছ থেকেও সেই তেল জোগাড় করার ভাবনা চিন্তা করতে পারে বিজ্ঞানীরা, পরামর্শ সামুদ্রিক প্রাণী রক্ষাকারী সংগঠনদের।

যে গতিতে গবেষণা চলছে, তাতে আগামী বছর একাধিক সংস্থা টিকা আবিষ্কার হবে বলে মনে করছে ওয়ার্ল্ড হেলথ ওর্গানাইজেশন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here