স্ত্রীর মন জয় করার সহজ ১০ উপায়!

20

শিখো বাংলায়: দুনিয়াতে স্বামী-স্ত্রী এক মধুর সম্পর্ক। আর এ সম্পর্ক ভালো রাখতে একে অপরের সঙ্গে খুশি থাকা প্রয়োজন। সম্পর্কে সুখ না থাকলে তা আসলে খুব বেশি দিন স্থায়ী হয় না। সম্পর্ক ভাঙনের পেছনে মূলত কাজ করে এই অখুশি থাকাটাই। তাই সঙ্গী আপনার সঙ্গে খুশি রয়েছেন কি না তা লক্ষ রাখুন।

প্রত্যেক মানুষের সংসার জীবনে সুখী হওয়া খুব জরুরি। কারণ সারা দিন কাজ করে ঘরে ফেরার পরে যদি শান্তি পাওয়া না যায় তবে কিন্তু বিপদ। তাই ঘরের শান্তির কথাও মাথায় রাখতে হবে। আর ঘরে শান্তি চাইলে আপনার স্ত্রীর মন জয় করতে হবে। পরিবারের কর্তা হিসেবে স্ত্রী ও সন্তানদের সুখী রাখার দায়িত্ব স্বামীর। সংসারের সবার বিষয়ে তার খোঁজ রাখতে হবে।

আপনার কি মনে পড়ে কবে সর্বশেষ স্ত্রীর খুশির জন্য ব্যতিক্রম কিছু করেছেন? হয়তো অনেক দিন আগে, তাই না? দামি উপহার দিয়েই যে সব সময় স্ত্রীর মন জয় করা যাবে তা নয়। অনেক সময় ছোট ছোট অনেক কিছু সম্পর্ককে মধুময় করে তোলে। আপনার স্ত্রী শুধুমাত্র আপনার জীবনসঙ্গী নয়- একজন প্রেমিকা, খারাপ সময়ের শ্রেষ্ঠ বন্ধু, মায়ের মতো যত্নশীল একজন মানুষ। এককথায় আপনার জীবণে প্রতিটি মুহূর্তে চলার সঙ্গী আপনার স্ত্রী।

আসুন জেনে নেই স্ত্রীর মন জয় করার ১০ উপায়।

১. তার সঙ্গে হাস্যোজ্জ্বলভাবে কথা বলতে হবে। কথা বলার সময় যেন আপনাকে আত্মবিশ্বাসী দেখায়। কারণ, ভীরু টাইপের কাউকে সেভাবে পছন্দ করে না নারীরা। তারা চায়, সঙ্গীর প্রতি যেন আস্থা রাখা যায়। পারলে স্ত্রীর প্রশংসাও করুন।

২. সবসময় সৎ থাকা দরকার। কারণ, একবার বিশ্বাস ভেঙে গেলে নারীরা আর তাকে পছন্দ করে না। স্ত্রীর বিশ্বাসের অমর্যাদা করলে তার মন জয় করা যাবে না। সংসার সুখের রাখতে চাইলে বিষয়টি মাথায় রেখে চলা দরকার।

৩. নারীরা কখনওই তার পরিবার বা প্রিয় বন্ধুদের সম্পর্কে কোনোরকম সমালোচনা সহ্য করতে পারেন না। তাই স্ত্রীর সামনে আপনজনদের সম্পর্কে সমালোচনা করবেন না।

৪. স্ত্রীকে কখনই অন্যের সঙ্গে তুলনা করবেন না। এতে তারা মনে কষ্ট পেতে পারেন।

৫. স্ত্রীর উপস্থিতিতে কখনও তৃতীয় ব্যক্তিকে বেশি গুরুত্ব দেবেন না। কোনো পুরনো বন্ধু বা পরিচিত কেউ সামনে থাকলেও সমানভাবে গুরুত্বদিন।

৬. বাসায় রান্নার কাজ ও সন্তানের যত্ন নিতে স্ত্রীকে সহযোগিতা করুন। সারা দিন অফিস করে এসে ঘরের কাজ করতে আপনার ইচ্ছা করবে না। আপনার স্ত্রীর ক্ষেত্রেও কিন্তু বিষয়টি তাই। তাই ঘরের কাজে স্ত্রীকে সাহায্য করুন।

৭. উপহার পেতে কার না ভালো লাগে? আর তা যদি হয় আপন কারো কাছ থেকে তাহলে তো কথাই নেই। স্ত্রীকে দামি কোনো কিছু কিংবা অত্যন্ত চমৎকার কিছু উপহার দিন। তাহলে লক্ষ্য করবেন তার মুখ কেমন তারার মতো উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

৮.কোনো অনুষ্ঠান কিংবা উৎসব ছাড়াই তাকে ফুল উপহার দিন। কিছু ফুল কিংবা অর্কিড নারীর মনকে প্রফুল্ল করার জন্য যথেষ্ট।

৯.সকালের একটু চুমু আপনার সম্পর্ককে আরো মধুময় করে তুলবে। স্ত্রীরা সব সময় তাদের হৃদয়ের অন্তঃস্থল থেকে তাদের স্বামীকে ভালোবাসে। তাই তাকে এমনভাবে চুমু দেবেন যেন মনে হয় এটাই আপনাদের প্রথম চুমু।

১০. কোনো মানুষ মিথ্যা বলা একবারে সহ্য করতে পারে না। তাই মিথ্যা বলবেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here