মাওলানা ডক্টর আদিল খানের শাহাদাতে আল্লামা বাবুনগরীর শোক

18

শিখো বাংলায়: পাকিস্তান জামিয়া ফারুকিয়া করাচির প্রতিষ্ঠাতা, বুখারী শরীফের ব্যাখ্যাকার শাইখুল হাদিস আল্লামা সলিমুল্লাহ খান রহ. এর ছেলে মাওলানা ডক্টর আদিল খান সন্ত্রাসীদের গুলিতে শহিদ হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হাটহাজারী মাদরাসার শায়খুল হাদীস ও শিক্ষা পরিচালক, হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

আজ রোববার সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, একজন শীর্ষ আলেমকে এভাবে গুলি করে শহিদ করার দ্বারা বুঝা যায় পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা কতটা দূর্বল। ক’দিন পর পরই পাকিস্তানে শীর্ষ আলেমদের উপর এমন হামলার ঘটনা ঘটে। যা বড়ই দুঃখজনক। শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পাকিস্তান সরকারকে আরো কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে হবে।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, মাওলানা ডক্টর আদেল খান অত্যন্ত বিনয়ী একজন মানুষ ছিলেন। তিনি তার পিতা শায়খুল হাদীস আল্লামা সলিমুল্লাহ খান রহ. এর সাথে হাটহাজারী মাদরাসায় এসেছিলেন। এছাড়াও আমার আব্বাজান মিশকাত শরীফের বিশ্ববিখ্যাত ব্যাখ্যাগ্রন্থ তানজীমুল আশতাত রচয়িতা আল্লামা আবুল হাসান রহ. এর সাথে শায়খুল হাদীস সলিমুল্লাহ খান রহ. এর গভীর হৃদ্যতা ছিলো। উভয়েই বড় আলেম ও হাদীসের ব্যখ্যাকার ছিলেন। মাওলানা আদিল খানের শাহাদাতে আমি গভীরভাবে শোকাহত।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন,মাওলানা ডক্টর আদিল খান করাচীর প্রসিদ্ধ মাদরাসা জামিয়া ফারুকিয়ার স্বনামধন্য মুহতামিম ছিলেন। অত্যন্ত দক্ষতা ও বিচক্ষণতার সাথে মাদরাসা পরিচালনার পাশাপাশি তিনি শানে সাহাবা নিয়ে কাজ করতেন। সাহাবায়ে কেরামের শান ও মান রক্ষায় তার বহুমুখী খিদমত ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে।

পাকিস্তান সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়ে হেফাজত মহাসচিব বলেন- যে সকল সন্ত্রাসীরা ডক্টর আদিল খানকে এভাবে প্রকাশ্যে গুলি করে শহীদ করেছে অনতিবিলম্বে তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করুন। কিছুদিন পর পর এভাবে ওলামায়ে কেরামের উপর হামলার ঘটনা চরম উদ্বেগজনক। ওলামায়ে কেরামসহ সর্বসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারলে বিশ্ব দরবারে পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রশ্নের মুখে পড়বে।

ভবিষ্যতে ওলামায়ে কেরামের উপর হামলার ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে সেদিক সজাগ দৃষ্টি রাখতে পাকিস্তান সরকারের প্রতি আহ্বান জানান আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দোয়া করি, আল্লাহ তাআলা তার সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করুন এবং ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থান দান করুন, আমিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here