শিখোবাংলায়.কম: বিহারে পাঁচ পেয়ে এবার লক্ষ্য পশ্চিমবঙ্গ। মাত্র ২০টি আসনে প্রার্থী দিয়ে তিনি পেয়েছেন পাঁচটি। চার কোটি ভোটারের মধ্যে ১.‌৪ শতাংশ ভোট দিয়েছেন। গতবার দিয়েছিলেন ০.‌৫ শতাংশ। পরিসংখ্যানের দিক থেকে আর হেলাফেলা করা যাবে আসাদউদ্দিন ওয়াইসির দলকে। হায়দরাবাদে বসেই তিনি জানিয়ে দিলেন, পরবর্তী পদক্ষেপ।

২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে লড়বে ওয়াইসির দল এআইএমআইএম। ২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশে। সে দেশের বড় দল যতই তাদের ‌অচ্ছুত‌ ‌ভাবুক। বিজেপির ‌বি টিম‌ বলে কটাক্ষ করুক, ওয়াইসি অনড়। এবার থেকে দেশের সব ভোটেই লড়বে তার দল।

লোকসভায় কংগ্রেসের নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরি আঙুল তুলেছেন, বিহারে বিজেপি-বিরোধী ভোট কেটেছে ওয়াইসির দল। সেই নিয়ে এবার অধীরকে একহাত নিলেন তিনি। বললেন, কংগ্রেস ব্যর্থতা ঢাকতেই এসব বলছে। হায়দরাবাদের সাংসদের খোঁচা, ‌তার মানে আমদের ভোটে লড়া উচিত হয়নি। আপনারা (‌কংগ্রেস)‌ গিয়ে শিবসেনার কোলে বসে পড়েছেন (‌মহারাষ্ট্রে)‌। যদি কেউ জিজ্ঞেস করে, কেন ভোটে লড়েছি, বলব আমি পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ, গোটা দেশে ভোটে লড়ব। ভোটে লড়ার জন্য আমার কারও অনুমতি নিতে হবে না।

এর পর সরাসরি অধীরকে আক্র’মণ করেন ওয়াইসি। বলেন, ‌অধীর রঞ্জন চৌধুরিকে জবাব দিতে হবে, তার কেন্দ্রে মুসলিমদের এই অবস্থা কেন। ওকে বলতে হবে, মুসলিমদের জন্য কী করেছেন।‌ তবে পশ্চিমবঙ্গে ভোট লড়লেও কার সঙ্গে জোটে যাবেন, তা খোলসা করে বলেননি ওয়াইসি।