কোনাবাড়ি এলাকায় মেয়েকে ধর্ষণের অপরাধে বাবা গ্রেপ্তার

23

শিখো বাংলায়: জেলার কোনাবাড়ি এলাকায় মেয়েকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বাবা রাজুর মিয়াকে (৪০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রাজুর গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁও সদরের গোবিন্দনগর এলাকায়। গ্রেপ্তারের পর তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গত রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা বাদী হয়ে কিশোরীর বাবার বিরুদ্ধে কোনাবাড়ি থানায় একটি মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোনাবাড়ি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল জলিল জানান, রাজু স্বপরিবারে কোনাবাড়ি এলাকায় ভাড়া থেকে দিনমজুরের কাজ করে। ভুক্তভোগী কিশোরী (১৫) ও তার মা (৩০) স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। কিশোরী মেয়েকে তার বাবা একা পেলেই কু-প্রস্তাব দিত এবং বিভিন্ন সময় তাকে উত্যক্ত করত।

গত শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে মেয়েকে নিজ ঘরে বিভিন্ন কথা বলে উত্যক্ত করতে থাকে। এক পর্যায়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে মেয়ের চিৎকার শুনে মা ঘরে যায়। পরে মেয়ের কাছ থেকে ঘটনা শুনে মা-ও ডাক চিৎকার শুরু করেন।
তাদের চিৎকার শুনে এলাকাবাসি রাজুকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। ওই কিশোরী গাজীপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দেয়। গ্রেপ্তারের পর রাজুকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here