শিখোবাংলায়.কম: করোনা ভাইরাসের মহামারির কারণে গত আট মাস যাবত বন্ধ রয়েছে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এই বন্ধের সময়টি কাজে লাগিয়েছেন ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার দেওখোলা ইউনিয়নে হাজী কোরবান আলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বোরহান উদ্দিন।

স্কুল প্রাঙ্গণে বপন করেছেন লাল শাক। প্রধান শিক্ষকের এমন সিদ্ধান্তে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। স্থানীয়রা বলছেন, স্কুল প্রাঙ্গণটি চাষ করে সেখানে লাল শাকের চাষ করছেন প্রধান শিক্ষক। যার ফলে মাঠটি কোন কাজে আসছে না এলাকার শিশু কিশোরদের। বন্ধ রয়েছে শিক্ষার্থীদের খেলাধূলা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, একটি সরকারি কিংবা বেসরকারি বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ এলাকার শিশু কিশোরদের খেলার মাঠ। কারণ এখন আর তেমন খালি জায়গা পড়ে থাকে না।

স্কুল মাঠগুলো এলাকার মানুষের অবসরের জন্য কাজে লাগে। কিন্তু প্রধান শিক্ষকের এমন কাজে অকেজো হয়ে পড়েছে মাঠটি।

তারা আরও বলেছেন, যদি হঠাৎ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে যায় সে ক্ষেত্রে অনেকটা সমস্যায় পড়বেন বিদ্যালয় সংশ্লিষ্টরা। আর এ বিদ্যালয় অঙ্গনে শিক্ষকের লালশাক চাষ একটি বিরল কাজ।

এটিকে নেতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন তারা। প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও স্কুলটি নিয়মিত মেরামত পরিষ্কারসহ প্রাত্যহিক কাজ চালু থাকার কথা ছিল।

প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে লাল শাক বপন করা নিয়ে প্রধান শিক্ষক বোরহান উদ্দিনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসের সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, বিষয়টি তাদের জানা নেই। তিনি খোজ নিয়ে ব্যবস্থা নিবেন।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবদুল্লাহ আল বাকী জানান, বিদ্যালয় মাঠ থেকে লাল শাক অপসারণ করার জন্য প্রধান শিক্ষককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে ছুটি রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠা। এই ছুটি আরেক দফা বাড়ানো হয়েছে। সর্বশেষ আগামী ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই ছুটি বাড়ানো হয়েছে।