এবার সরকারিভাবে তুর্কি পণ্য নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত সৌদি আরবের

32

শিখো বাংলায়ঃ মধ্যপ্রাচ্যে তুরস্ক-ইরান ও কাতারকে যদি এক জোট ধরা হয় তাহলে সৌদি আরবসহ বাকি আরব রাষ্ট্রগুলো আরেক জোট। দীর্ঘদিন ধরেই তাদের মধ্যে বিভক্তি স্পষ্ট। এবার জানা গেল সরকারিভাবে তুর্কি পণ্য নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি আরব।

সোমবার তুর্কি গণমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে পার্সটুডের খবরে বলা হয়, বিগত কয়েক মাস ধরেই অঘোষিতভাবে সৌদি ব্যবসায়ীদের ওপর তুর্কি পণ্য বর্জনের ব্যাপারে চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। সেই ধারাবাহিকতায় এবার আনুষ্ঠানিকভাবে এ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে সৌদি সরকার। চলতি সপ্তাহেই এ ঘোষণা আসতে পারে।

ঘটনাটিকে ‘গোপন অবরোধ’ আখ্যা দিয়ে তুর্কি গণমাধ্যমগুলো বলছে, রিয়াদের এই নিষেধাজ্ঞা আঙ্কারার সংকটাপন্ন অর্থনীতির জন্য সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

অন্যদিকে, তুরস্কের ব্যবসায়ীদের সৌদির ব্যবসায়ীরা বলছেন, তারা তুর্কি পণ্যে অভ্যস্ত হয়ে গেছেন। এমনকি দেশটির ক্রেতারাও তুর্কি পণ্যে সন্তুষ্ট। কিন্তু এখন থেকে তারা আর এসব পণ্য কিনতে পারবেন না। এক্ষেত্রে পণ্যগুলো তৃতীয় কোনো দেশে রপ্তানি করতে অনুরোধ করেন তারা।

এর আগে গত জুলাই মাসে মিডিল ইস্ট আই এক প্রতিবেদনে বলেছিল, তুরস্ক থেকে তাজা ফলমূল এবং শাকসবজি বহন করা ট্রাকগুলোকে সীমান্তে আটকে দেয়া হচ্ছে। এগুলো পার হতে বাধা দিচ্ছে সৌদি আরব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here