শিখোবাংলায়.কম: ভারতের রাজস্থানের আলওয়ারের বাসিন্দা এক হিন্দু যুবক ইসলামের বিরুদ্ধে অমুসলিমদের অপপ্রচারে বিরক্ত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ভর্তি হয়েছেন।

একজন হিন্দু হয়েও ভারতের কাশ্মীর কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলামিক স্টাডিজ বিষয়ে কমন এন্ট্রান্স টেস্টে (ভর্তি পরীক্ষা) প্রথম স্থান অর্জন করেছেন তিনি।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার সূত্রে জানা যায়, এ হিন্দু যুবকের নাম শ্রী শুভম যাদব। যিনি ইতিপূর্বে দর্শনশাস্ত্রে গ্রাজুয়েশন করেছেন। পরিপূর্ণভাবে ইসলাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ থেকেই তিনি মাস্টার্স এর জন্য ইসলামিক স্টাডিজ কে বেছে নিয়েছেন এবং এই উদ্দেশ্যে ভারতের একটি ইউনিভার্সিটিতেও ভর্তি হয়েছেন।

ইসলামিক স্টাডিজে মাস্টার্স করার সিদ্ধান্ত সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ইসলাম সম্পর্কে অনেক ভুল ধারণা প্রচার করা হয়েছে।’ তিনি মনে করেন, ‘ইসলামই একমাত্র ধর্ম, যাকে সবচে বেশি ভুল বোঝা হয়েছে। পৃথিবীর বহু রাষ্ট্রপ্রধানদেরও একই বক্তব্য।’ এ কারণেই তিনি উপলব্ধি করেছেন যে, তার মাস্টার্সের ডিগ্রি ইসলামিক স্টাডিজে করা উচিত।

শুভম যাদবের ভাষ্য মতে তিনি ব্যক্তিগতভাবে ইসলাম সম্পর্কে জানতে চান যাতে করে তিনি হিন্দু ও মুসলিম সমাজের মাঝে সম্পর্ক তৈরি করতে পারেন এবং এই ব্যাপারে কোনো ভূমিকা রাখতে পারেন।

তার পিতা-মাতার বক্তব্য হলো, তাদের সন্তান নিজের স্বপ্নকে পূরণ করতে কাশ্মীরে পড়তে যাবে, কিন্তু তারা সেখানে তার নিরাপত্তার বিষয়ে আশঙ্কা বোধ করছেন। অন্যদিকে শুভম এর কথা হলো আমি পড়াশোনার জন্য দুই বছর কাশ্মীরে থাকবো। এর আগেও আমি কাশ্মীরে গিয়েছিলাম; সেখানকার মানুষ খুবই মিশুক ও আন্তরিক।

তিনি আরো বলেন, কোনো নির্দিষ্ট ধর্ম এবং ধর্মাবলম্বীদের ব্যাপারে কোন ধরনের অপপ্রচার ও প্রপাগান্ডা করা উচিত নয়।

অনুবাদ: শাহাদাত হুসাইন